মঠবাড়িয়া প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত

পিরোজপুর জেলায় প্রথমবারের মতো করোভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। তাঁর বাড়ি জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলায়। পিরোজপুরের সিভিল সিভিল সার্জন মো. হাসনাত ইউসুফ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গতকাল সোমবার বিকেলে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের ল্যাবে ওই ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষায় করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ওই ব্যক্তিকে (৩০) মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশনে রাখা হয়েছে


পিরোজপুর জেলায় প্রথমবারের মতো করোভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। তাঁর বাড়ি জেলার মঠবাড়িয়া উপজেলায়। পিরোজপুরের সিভিল সিভিল সার্জন মো. হাসনাত ইউসুফ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গতকাল সোমবার বিকেলে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজের ল্যাবে ওই ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষায় করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ওই ব্যক্তিকে (৩০) মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

পিরোজপুরের সিভিল সিভিল সার্জন মো. হাসনাত ইউসুফ প্রথম আলোকে বলেন, পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় এক ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষার পর করোনাভাইরাস ধরা পড়েছে। পিরোজপুর জেলায় এই প্রথম কোনো ব্যক্তির করোনা পজিটিভ পাওয়া গেল। ওই ব্যক্তি আইসোলেশনে আছেন। তবে তাঁর নমুনা পুনরায় পরীক্ষার জন্য ঢাকার রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) পাঠানো হচ্ছে।

মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, গত শুক্রবার সকালে ওই ব্যক্তি নারায়ণগঞ্জ থেকে মঠবাড়িয়া উপজেলায় আসেন।তিনি পেশায় দিনমজুর। এরপর তিনি হোম কোয়ারেন্টিনে না থেকে ঘোরাঘুরি করছিলেন। খবর পেয়ে ওই দিন বিকেলে স্থানীয় প্রশাসন তাঁকে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কোয়ারেন্টিনে রাখেন। পরদিন শনিবার তাঁর নমুনা সংগ্রহ করে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ল্যাবে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। গতকাল সোমবার বিকেলে ল্যাবের কর্মকর্তারা পিরোজপুরের সিভিল সার্জনের কার্যালয়ে তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন উল্লেখ করে প্রতিবেদন পাঠান।

মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আলী হাসান বলেন, ওই ব্যক্তি নারায়ণগঞ্জ থেকে বাড়িতে এসে ঘোরাফেরা করছিলেন। হোম কোয়ারেন্টিন না মানায় তাঁকে হাসপাতালে এনে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছিল। তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ আছেন। তাঁর করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কোনো লক্ষণ যেমন জ্বর, সর্দি, কাশি ও গলাব্যথা নেই। শুধু নারায়ণগঞ্জ থেকে আসায় তাঁর নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়। পরীক্ষায় তাঁর করোনা পজিটিভ আসে। এরপর তাঁকে আইসোলেশনে রাখা হয়।

এ বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রিপন বিশ্বাস বলেন, এ ঘটনায় গতকাল সন্ধ্যায় ওই ব্যক্তির গ্রামটিসহ পাশাপাশি দুটি গ্রাম লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে।

এ পর্যন্ত পিরোজপুর জেলায় ৪২ জনের নমুনা পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়েছিল। ১৮ জনের ফলাফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে একজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

0Shares

1 thought on “মঠবাড়িয়া প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

You may have missed