মঠবাড়িয়ায় ডাকাতি মামলার আসামীর বিরুদ্ধে সাক্ষী দেওয়ায় অপহরণ করে মারপিট ও চাদা দাবী

স্টাফ রিপোর্টার: পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া ডাকাতি মামলার আসামীর বিরুদ্ধে সাক্ষী দেওয়ায় অপহরণ করে মারপিট ও চাদা দাবী করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এব্যাপারে মঠবাড়িয়া বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ২০জনকে আসামি করে পরপর ৩টি মামলা দায়ের করেন।

প্রথম মামলা ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০২০ইং এম পি কেস নং-৪০৫/২০২০, ২য় মামলা ৩০সেপ্টেম্বর ২০২০ এম পি কেস নং- ৪৩৩/২০২০।

এছাড়াও মঠবাড়িয়া উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ২৭শে সেপ্টেম্বর ২০২০ইং ৭জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলা সূত্রে জানাযায়ঃ উপজেলার দক্ষিন মিরুখালী গ্রামের মোস্তফা খানের ছেলে রুবেল খান ও নাজমুল খান, আল আমিন সহ ১৮/২০ জন পূর্বে একই এলাকার আঃ মান্নানের বাড়ি ডাকাতি করে।

এসময় আঃ মান্নানের স্ত্রী বাদী হয়ে মঠবাড়িয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।
ওই অভিযোগের উপজেলার দক্ষিণ মিরুখালী গ্রামের মৃত সুলতান খানের ছেলে জালাল খান আসামীদের বিরুদ্ধে সাক্ষী দেওয়ায়, গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মঠবাড়িয়া পৌরসভার সামনে থেকে অপহরণ করে মঠবাড়িয়া সরকারি কলেজের মাঠে নিয়ে। ছাইদুল ডাক্তারের ছেলে আসলাম ডাক্তার (৩০) , আলম ডাক্তারের ছেলে ফেরদাউস(২১),সালাম খানের ছেলে আক্রাম সহ ৪/৫জন, ছোড়া, লাঠি, চাকু,লোহার রড সহ বিভিন্ন অস্রসস্ত্রে সাজ্জিদ হয়ে। পরে জালালকে কোর্টের মামলা তুলে নিতে বলে জালাল রাজি না হওয়ায় এলোপাথাড়ি মারপিট করে অলিখিত কিছু জুডিসিয়াল স্ট্যাম্প ও সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেন।
এসময় পকেটে থাকা ৯হাজার টাকা ছিনতাই  করে নিয়ে যান।

বিষয়টি মঠবাড়িয়া এ এস পি (সার্কেল) হাসান মোস্তফা স্বপনকে জানালে তিনি আইনের আশ্রয় নেওয়ার জন্য পরামর্শ দেন।

0Shares

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।