মঠবাড়িয়ায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিবেশী কে গাছকাটা মামলা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা

স্টাফ রিপোর্টার ঃপিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিবেশীকে গাছ কাটা মামলা দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার গুলিশাখালী ইউনিয়নের দূর্গাপুর গ্রামে।স্থানীয় সূত্রে জানা যায় দুর্গাপুর গ্রামের মোঃ আবুল হাশেমের ছেলে মোঃ আলমগীর হোসেন( অবঃ) আর্মী তার বসত বাড়ির কাছে থাকা ৬ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য আলতাফ হোসেন এর ১১ শতাংশ ও প্রতিবেশী আঃ কাদের হাওলাদারের ছেলে বাবুল এর ১৫ শতাংশ জমি বিগত ৬ বছর আগে প্রয়োজনের তাগিদে ক্রয়ে করে বসত বাড়ি তৈরি করেন। উল্লেখ্য বাবুলের জমি বিক্রির সময় তার জমিতে কিছু চারা গাছ রোপন করা ছিল যাহা আলতাফ মেম্বারের বংশের একটি পক্ষের সিমানার পার্শ্বে রাস্তা সংলগ্ন ছিলো। এদিকে বাবুলের দাবি অনুযায়ী তিনি জানান আমার জমির সীমানা রাস্তার অর্ধেক পর্যন্ত সকল চারা গাছ লাগানো ছিল আমার জমির ভিতর সে অনুযায়ী আমিন দিয়ে ৬ বছর আগে আমার বিক্রিত জমি আলমগীর কে মেপে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।এরপরেও উক্ত জমির গাছ বড়ো হয়ে যাওয়ায় বর্তমানে স্বার্থন্বেষী ও লুভি আলতাফ মেম্বার ওরফে বোমা আলতাফ প্রতি নিয়ত ঐ গাছ অবৈধ ভাবে দাবী করে আসছে এবং আলমগীর কে বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করে আসছে। তারপর ও আলমগীর নিজ ইচ্ছায় আলতাফ মেম্বার এর বড়ো ছেলেকে একটি গাছ দেওয়ায় তার ছেলে গাছটি বিক্রি করায় আলতাফ মেম্বার নাটকিয় ভাবে আলমগীর ও তার পরিবারের উপর মঠবাড়িয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল মেজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করে হয়রানি করার চেষ্টা করছে। এ ব্যাপারে আলতাফ মেম্বার এর মুঠোফোনে যোগাযোগ করে না পাওয়ায় তার বড়ো ছেলের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন আমার বাবা লুভী, উশৃংখল তিনি অহেতুক ভাবে আলমগীর কে হয়রানি করে আসছে।

0Shares

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।